একাদশে ভর্তির জন্য লাগবে অভিভাবকের এনআইডি

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, এবার একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রমে প্রতারণার আশ্রয় গ্রহণ করলে কঠোরভাবে দমন করা হবে। তিনি বলেন, কেউ যেন প্রতারণার আশ্রয় নিতে না পারে সে জন্য একাদশ শ্রেণির ভর্তি প্রক্রিয়ায় অনেক পরিবর্তন আনা হয়েছে। প্রথমবারের মতো ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীর অভিভাবকের ন্যাশনাল আইডি কার্ডের পিন নম্বর বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এরপরও যদি কেউ প্রতারণা করে তাহলে তাকে দমন করার জন্য আমরা কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করব। তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা যেন প্রতারণা ও ভোগান্তির শিকার না হয় সে দিকে আমাদের মন্ত্রণালয় সজাগ দৃষ্টি রেখেছে।

এ সময় ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহামুদ উল হক এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গুরুত্বপূর্ণ অনেক কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। মু. জিয়াউল হক বলেন, তিনটি ধাপে একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে জিপিএ-৫ ও জিপিএ-৪ প্রাপ্তি প্রায় শতভাগ শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবে। বাকিরা তৃতীয় ধাপে ভর্তির সুযোগ পাবে। কেউ ভর্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে না।

এবার ভর্তির জন্য আবেদনকারীর বাবা-মায়ের জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) নম্বর বাধ্যতামূলকভাবে দিতে হবে। ২০১৭, ১৮ এবং ১৯ সালে যারা এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস করেছে তারাই এবার ভর্তি হতে পারবে। মোট আসনের অতিরিক্ত পাঁচ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ